পুলিশের ফোন দিয়েই কথা বলেছিল জঙ্গিরা

0
86

‘আদালতে নেওয়ার পথে ছিনতাই হওয়ার আগে পুলিশের মোবাইল দিয়েই সহযোগিদের সঙ্গে কথা বলে জঙ্গিরা’। শুধু জঙ্গিরাই নয়, জেলখানা থেকেও আসামিরা হরহামেশাই মোবাইল ফোনে কথা বলার সুযোগ পায়। আর এ সুযোগ করে দেন কারাগারের এক শ্রেণীর কর্মকর্তা ও কর্মচারি।’

সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে কয়েকজন সিনিয়র মন্ত্রী এসব অভিযোগ উত্থাপন করে বিষয়টির উপর বিশেষভাবে নজর দিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। বৈঠকের একটি সূত্র জানায়, ‘মন্ত্রিসভায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু ছিল পুলিশ হত্যা করে ৩ জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনাটি।’

ওই সূত্রটি জানায়, বৈঠকের শুরুতেই পুলিশ সদস্য হত্যা করে প্রিজনভ্যান থেকে বন্দী ছিনতাইয়ের ঘটনাকে দু:খজনক উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, দ্রুত সময়েই নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) পলাতক বন্দীদের খুঁজে বের করা হবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক মন্ত্রী এ প্রতিবেদককে জানিয়েছেন, মন্ত্রিসভার ওই বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীকে তারা অবহিত করে বলেছেন- তাদের কাছে তথ্য আছে ছিনতাই হওয়া পলাতক বন্দীরা তাদের সহযোগিদের সঙ্গে কথা বলেছিল প্রিজনভ্যানে থাকা পুলিশের মোবাইল দিয়েই। শুধু তাই নয়, কারাগারে আটক আসামিরা হরহামেশাই মোবাইল ফোনে কথা বলার সুযোগ পেয়ে থাকে বলেও তাদের কাছে তথ্য রয়েছে। ওই মন্ত্রীরা দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানান।