বিশ্বের বড় দুষমন দারিদ্র্য: প্রধানমন্ত্রী

0
136

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্বের সবচেয়ে বড় দুষমন দারিদ্র্য। এজন্য তিনি যে দেশেই সফরে যান, তাদের সরকারের কাছে এই দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে সবাই মিলে লড়াই করার বার্তা দেন।

রোববার বিকেলে গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন। ১২ দিনের সরকারি সফরের বিষয়ে দেশবাসীকে অবহিত করতে এই সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিভিন্ন দেশ মনে করে তাদের একটি শত্রু থাকা দরকার। কিন্তু, আমি মনে করি, আমাদের সবার কমন শত্রু দারিদ্র। এজন্য আমি যেখানেই যায়, তাদের সরকারকে দারিদ্র্য নামক শত্রুকে মোকাবেলা করার আহ্বান জানাই।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সব সময়ই হুমকি থাকে। এবারের ঈদেও ছিল। এসব বিষয়ে আমি বিস্তারিত এখানে বলতে চাচ্ছি না। কিন্তু, সার্বক্ষণিক খোঁজ রেখেছি। দেশবাসী ঈদুল ফিতর শান্তিপূর্ণভাবে উদযাপন করেছে। এজন্য আমি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

সরকারি সফর শেষে গতকাল শনিবার সকাল ১০টা ৫৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী এবং তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইট হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছে।

১২ দিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাপান, সৌদি আরব এবং ফিনল্যান্ড সফর করেন।

গত ২৮ মে প্রধানমন্ত্রী তিন দেশ সফরে টোকিওর উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন। সেখানে চার দিনের সফরে শেখ হাসিনা ও জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের মধ্যে বৈঠক শেষে দুই দেশ আড়াই বিলিয়ন মার্কিন ডলারের ৪০তম ওডিএ চুক্তি স্বাক্ষর করে।

এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী ‘ফিউচার ফর এশিয়া’ বিষয়ক নিক্কেই সম্মেলনে যোগ দেন। ওই সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। তিনি জাপানের ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গেও গোলটেবিল বৈঠক করেন।

পাশাপাশি হোলি আর্টিজান হামলায় হতাহতদের পরিবার এবং জাইকার প্রেসিডেন্ট শিনিচি কিতাওকা শেখ হাসিনার সঙ্গে পৃথকভাবে সাক্ষাৎ করেন।

৩১ মে টোকিও থেকে সৌদি আরবে তিন দিনের সফরকালে প্রধানমন্ত্রী মক্কায় অনুষ্ঠিত ১৪তম ওআইসি শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেন। এ ছাড়া তিনি মক্কায় পবিত্র ওমরাহ পালন এবং মদিনায় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর রওজা মোবারক জিয়ারত করেন।

বিএম/এমার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here