প্রথম সাবমেরিনে আলোকিত হচ্ছে সন্দ্বীপ | ইবিডি নিউজ

প্রথম সাবমেরিনে আলোকিত হচ্ছে সন্দ্বীপ

দেশের প্রথম সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে বিদ্যুতায়িত হচ্ছে চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলা। আগামী জুন মাসে এ উপজেলার ১০হাজার গ্রাহক পাবে বিদ্যুত সুবিধা। প্রাথমিকভাবে ১০ মেগাওয়াট বিদ্যুত সরবরাহ করা হবে দ্বীপ উপজেলা সন্দ্বীপের জনগন।

পিডিবির তত্বাবধানে ১৪৪ কোটি টাকা ব্যয়ে সাবমেরিন ক্যাবল বসানোর কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জেডটিটি। দেশের প্রথম সাগরের তলদেশ থেকে ২০ ফুট গভীরে সাবমেরিন ক্যাবল বসানোর কাজ আজকে শেষ করেছে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি)।

সন্দ্বীপ ও সীতাকুণ্ড অংশে ওভার হেডলাইন স্থাপনের কাজ শেষ হলেই জুন মাস থেকে সন্দ্বীপ উপজেলার লক্ষাধিক মানুষ জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুতায়নের আওতায় আসবে।

বর্তমানে রেশনিং পদ্ধতিতে ২২০০ গ্রাহককে সন্ধা ৬টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত ১ মেগাওয়াট বিদ্যুত সরবরাহ করা হত। গত ২১ ডিসেম্বর থেকে ক্যাবল বসানোর কাজ শুরু হয়ে আজ শেষ হয়েছে।

ইতোমধ্যে পুরো প্রকল্পের কাজ ৬০ ভাগ শেষ হয়েছে জানিয়েছেন পিডিবি’র প্রধান প্রকৌশলী (দক্ষিণ) প্রবীর কুমার সেন। তিনি বলেন, জুন মাসের মধ্যে ক্যাবল স্থাপনের কাজ শেষে সন্দ্বীপে জাতীয় গ্রিডে ১০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাবে।

পিডিবির প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন জানান, চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সন্দীপ চ্যানেলের ১৬ কিলোমিটার অংশ জুড়ে ১৮ ফুট গভীরে সাবমেরিন ক্যাবল বসানোর কাজ শেষ হয়েছে। বর্তমানে সীতাকুণ্ডের ১০ কিলোমিটার ও সন্দ্বীপের ১৬ কিলোমিটার অংশে হেডলাইন স্থাপনের কাজ চলছে।

সাবমেরিন ক্যাবল স্থাপন প্রকল্পের সহকারী পরিচালক ও পিডিবির প্রকৌশলী ইকবাল করিম বলেন , সাবমেরিন ক্যাবল বসানোর কাজ আজ শেষ হয়েছে । জাহাজের মাধ্যমে সাগরের তলদেশে ১৬ কিলোমিটার অংশ জুড়ে ৩৩ হাজার ভোল্টের ২টি ক্যাবল বসানো হয়েছে। ক্যাবলে ৩টি কোর ও একটি অপটিকেল ফাইভার রয়েছে। এছাড়াও একটি সাবস্টেশন ও ২টি ট্রান্সফরমার বসানো হবে। বর্তমানে সন্দ্বীপ ও সীতাকুণ্ড অংশে ওভার হেডলাইন স্থাপনের কাজ চলছে।

সন্দ্বীপ আসনের সংসদ সদস্য মাহফুজুর রহমান মিতা বলেন, ‘চ্যানেলে সাবমেরিন ক্যাবল বসানোর শেষ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর প্রচেষ্টায় সন্দ্বীপের লক্ষাধিক মানুষ বিদ্যুতের আওতায় আসছে।

সোনার হরিণ হাতে পাচ্ছে সন্দ্বীপবাসী। বিদ্যুতের আওতায় আসলেই সন্দ্বীপে শিল্পাঞ্চলসহ নানা ব্যবসা বাণিজ্য শুরু হবে। যুবকদের কর্মসংস্থান বাড়তে থাকবে।

পিডিবি সুত্র জানায় , ২০১৪ সালের ১০ সেপ্টেম্বর সাবমেরিন ক্যাবল প্রকল্পটি একনেকে অনুমোদন দেয়া হয়। পরে প্রকল্পের জন্য আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান করা হয়। দরপত্রের মাধ্যমে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জেডটিটি সাবমেরিন ক্যাবল স্থাপনের কাজটি পায়।

প্রকল্প বাস্তবায়নকারী চায়না প্রতিষ্ঠান জেডটিটি”র প্রকল্প পরিচালক গুড উইন ইউ বলেন,কাজটি অনেক চ্যালেঞ্জিং ছিল।

এদিকে দেশের প্রথম সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে বিদ্যুতায়নের ফলে বহুদিনের বিদ্যুৎ সেবা থেকে বঞ্চিত সন্দ্বীপের লোকজনের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে।