খোলা কলাম | ইবিডি নিউজ

খোলা কলাম

শীতে গ্রামাঞ্চলে সুস্বাদু পিঠার আধিক্য ও উপস্থাপনের এক নান্দনিক গল্প

শীতে গ্রামাঞ্চলে সুস্বাদু পিঠার আধিক্য ও উপস্থাপনের এক নান্দনিক গল্প

নজরুল ইসলাম তোফা
বহুকাল ধরেই বাঙালীর লোক ঐতিহ্য পিঠার ইতিহাস বাংলাদেশের গ্রামীণ মানুষের ঘরে ঘরে শীত ঋতুতে বারবার হাজির হয়। শীতে বিভিন্ন ধরনের পিঠার গুরুত্ব এবং ভূমিকা সে তো ইতিহাসের কালজয়ী সাক্ষী। গ্রামীণ মানুষদের কাছে পিঠা ছিল এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা, পিঠার এই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় শহরের সবখানে এখন ছড়িয়ে পড়েছে। বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চলের অসংখ্য মানুষ অন্য ঋতুর চেয়ে শীতঋতু আসলেই যেন খুব বেশী পিঠা উৎসবের আয়োজন করে। যুগ যুগ মানুষেরা সুস্বাদু উপাদেয় পিঠা খাদ্যদ্রব্যে উৎসব পালন করে আসছে। হেমন্ত আসতে না আসতেই বাংলার ঘরে ঘরে শুরু হয় নবান্ন। চলে পিঠা বানানোর প্রস্তুতি। ইতোমধ্যে গ্রামেগঞ্জে তৈরিও হচ্ছে নানান স্বাদের পিঠা। শুধুই যে গ্রামে তা নয়, শহরের আনাচে কানাচে গড়ে ওঠে বিভিন্ন পিঠার দোকান। এই দোকানেও পিঠা তৈরির ধুম পড়ে যায় গ্রামের মানুষদের মতো। তবে গ্রামীণ জনপদের মানুষ যে ভাবে পিঠা তৈরী করে শহরের মানুষ ততটা ভালো পা
বিজ্ঞান গবেষনা ও পরিবেশ দূষন প্রযুক্তির বিকাশে মোবাশ্বের হোসেন

বিজ্ঞান গবেষনা ও পরিবেশ দূষন প্রযুক্তির বিকাশে মোবাশ্বের হোসেন

প্রযুক্তি ডেস্ক
এনভাইরোনমন্টোল মনিটরিং ও ল্যাবরেটরি প্রযুক্তি বিষয়ক সম্মলেনে দেশের মানসম্মত বিজ্ঞান গবেষনা এবং পরিবেশ দুষন মনিটরিং প্রযুক্তির বিকাশে অবদান রাখছেন মোবাশ্বের হোসেন । এনভাইরোনমন্টোল মনিটরিং ও ল্যাবরেটরি প্রযুক্তি বিষয়ক সম্মলেনে তরুন প্রযুক্তি উদ্যক্তা মোবাশ্বরে হোসনে ভারতের হায়দ্রাবাদে হাইটেক সিটিতে অনুষ্ঠতিব্য আন্তর্জাতিক ল্যাবরেটরি এনালাইটক্যিাল কনফারন্সে এ্যানালাইটিকা এ্যানাকন এবং নয়াদিল্লীতে ভারতীয় পরিবেশ অধিদফতরের আয়োজিত পরিবেশ বষিয়ক সম্মেলন কনটিনিউয়াস এ্মশিন মনিটরিংএ বাংলাদেশ েেথক মনোনিত প্রতিনিধি হিসেবে অংশ নিয়েছেন । তিনি গত ১৮ই সেপ্টেম্বর থেকে ৮ই অক্টোবর র্পযন্ত র্সাকভুক্ত ও বাংলাদেশের উচ্চ পর্যায়ের ল্যাবরেটেরি ও পরিবেশ মনিটরিং বিশেষজ্ঞদের সাথে নয়াদিল্লীতে জাপানের হরিবা সায়েনটিফিক সার্ক সদর দফতরে এয়ার পলুশন মনিটরিং প্রযুক্তি এবং কর্নাটকের বাঙ্গালোড়ে বিশ্ববিখ্যাত র্জামান প্রতিষ্ঠান স
বর্তমান সমাজ ব্যবস্থায় নৈতিকতাহীন শিক্ষার প্রভাব

বর্তমান সমাজ ব্যবস্থায় নৈতিকতাহীন শিক্ষার প্রভাব

মো. সাইদুল ইসলাম চৌধুরী
দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে শিক্ষায় আমাদের আমূল পরিবর্তন হয়েছে। শিক্ষা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দ্রুত প্রসার ঘটছে। নগরের পাশাপাশি গ্রামে গ্রামে ছড়িয়ে যাচ্ছে নব্য শিক্ষিত শ্রেণির সংখ্যা যা সত্যিকার অর্থে আমাদের নতুন প্রজন্মের জন্য শুভ সংবাদ। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় আমাদের শিক্ষিত সমাজ দেশের কল্যাণের জন্য যতটুকু করার প্রয়োজন ছিল সে তুলনায় তাদের অংশিদারিত্ব খুবই হতাশাব্যঞ্জক। সুশিক্ষা মানুষকে খারাপ নৈতিকতাহীন কর্মকা- থেকে বিরত থাকার অভিপ্রায় জাগায় আর সততা ও আদর্শকে গ্রহণ করার উৎসাহ দেয়। তবে বর্তমান শিক্ষায় ব্যবস্থায় এমন আদর্শিক প্রবণতা খুব একটা চোখে পড়েনা । এক সময় গুরুজনরা বলতো শিক্ষার প্রকৃত উদ্দেশ্য জ্ঞানার্জন ও নিজেকে পরিশুদ্ধ করার একটি উৎকৃষ্ট প্রক্রিয়া কিন্তু বর্তমান বাস্তবতায় তা বড্ড বেমানান। এখন আমরা শিক্ষাকে টাকা উপার্জনের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছি। বর্তমান প্রজন্মে কাছে সর্বোচ্চ ডিগ্
হাউ সুইট, কত্ত রোমান্টিক একটা মোমেন্ট

হাউ সুইট, কত্ত রোমান্টিক একটা মোমেন্ট

ডেস্ক নিউজ
ঘটনাটা বেশ আগের। মফস্বল শহরের। স্থানীয় একটা পত্রিকায় কাজ করতাম। নিউজ আর ছবি প্রকাশের ক্ষেত্রে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবার দায়িত্ব ছিল হাতে। সে সময় নিউজ প্রকাশে সেল্ফ সেন্সরশিপ (নিজস্ব বিবেচনা বোধ) নিয়ে মাঝে মাঝেই বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে হতো। একদিন স্টাফ ফটো সাংবাদিক এলেন একটা ছবি হাতে। শহরের এক অভিজাত পার্কে বসে থাকা এক যুগলের ছবি। ছেলেটি তার মেয়েবন্ধুকে বেশ রোমান্টিক মুডে জড়িয়ে ধরে আছেন। ভালোই লাগছিল দৃশ্যটি দেখে! ভেতরে ভেতরে আফসোসও হচ্ছিল। জীবনের উদ্দাম সময় জুড়ে এমন দৃশ্যের সঙ্গে নিজেকে আবিষ্কার করার সুযোগ আসেনি বলে! ফটো সাংবাদিকের কথা, এসব দৃশ্য দেখে পরিবার নিয়ে তো আর পার্কে যাওয়া যায় না। এসব বন্ধ করা উচিত। আমি খানিকটা আপত্তি জানিয়ে বললাম, থাক না, ওরা তো সব কলেজ-ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী। একটু আধটু ভালোবাসার চর্চা করতে দোষ কি? কি দরকার ছবি প্রকাশ করে ওদের বিব্রত করার? এ কথা শুনে হঠাৎ করেই চ
বিএনপি কি সংঘাতের রাজনীতি থেকে সরে আসছে

বিএনপি কি সংঘাতের রাজনীতি থেকে সরে আসছে

বিভুরঞ্জন সরকার
রাজনীতিবিদরা যেমন দেশের পরিস্থিতি উত্তপ্ত করে তুলতে পারেন, তেমনি শান্তি-সমাঝোতার পরিবেশও যে তৈরি করতে পারেন তার প্রমাণ গত ৫ জানুয়ারি পাওয়া গেছে। গত দুই বছর ৫ জানুয়ারি কেন্দ্র করে দেশের রাজনীতি হয়ে উঠেছিল সংঘাতময়। এবার হল তার ব্যতিক্রম। এ বছর ৫ জানুয়ারি ঘিরে রাজনীতির আকাশে কালো মেঘ দানা বাঁধার আগেই তা কেটে গেছে। এ কৃতিত্ব অবশ্যই রাজনীতিবিদদের। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ওই নির্বাচন ভালো পরিবেশে হয়নি। দেশের অন্যতম বড় দল বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট যেমন ওই নির্বাচনে অংশ নেয়নি, তেমনি আরও প্রায় এক ডজন নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলও নির্বাচনে অংশ নেওয়া থেকে বিরত ছিল। বিএনপি ও তার মিত্ররা নির্বাচন প্রতিহত করার ডাক দিয়ে সারাদেশে ভোটকেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত কয়েকশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পুড়িয়ে, প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মেরে, ভোটারদের হত্যা করে, ভয়ভীতি দেখিয়ে দেশে একটি ভয়াবহ পর
অভিন্ন অনুভব

অভিন্ন অনুভব

মেহেরুন নেছা রুমা
সেবারও এমনই হয়েছিল। প্রতিবারই এমন হয়ে শেষ পর্যন্ত শেষই হয়ে যায় সবকিছু। খুব কষ্ট পায় রেণুকা। আঘাতে আঘাতে মনের পাঁজরের হাড়গুলো চূর্ণ-বিচূর্ণ হয়ে জীবনটা কেবল ফাঁকা ফাঁকা লাগে। প্রথমবার মনে হচ্ছিল এমন ঘটনা জীবনে কেবল একবারই হতে পারে, একবারই আসে ভালোবাসা-জীবনে, এবং হারিয়ে গেলে তা আর কখনোই ফিরে আসে না। এমন কষ্টের দহন, দহনের কষ্ট জীবনে বারবার আসা কিছুতেই সম্ভব না। কিন্তু রেণুকার ধারণা ভুল প্রমাণিত করে দ্বিতীয় কেউ আসল জীবনে। দ্বিতীয়’র সাথে সাথে, হ্যাঁ, ধরতে গেলে একই সমান তালে, হয়তো’বা একটু আগ-পিছ করে তৃতীয়, চতুর্থবারও হল। প্রায় কাছাকাছি গল্প, চরিত্র, কাছাকাছি অনুভূতি আর কষ্টের দাগগুলোও ছিল প্রায় একই রকম গভীর, খাঁজকাটা বেদনাদায়ক। সেসব উতরেও এসেছিল রেণুকা। আসতে কী পেরেছিল সে? কী যন্ত্রণাই না পোহাতে হল ঘরে -বাইরে। তখন মনে হত এর চেয়ে মরণও ভাল এবং সহজ। কিন্তু জীবনের প্রতি মায়া সে ওতো কম নয়। তাইতো উতরে
আইসিটি আইন মত প্রকাশের অধিকারের হুমকিস্বরূপ

আইসিটি আইন মত প্রকাশের অধিকারের হুমকিস্বরূপ

আইসিটি নিউজ
বর্তমান তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইন মানবাধিকার-সম্পর্কিত বিদ্যমান আইন ও নীতিমালা, বিশেষত গণমাধ্যমের স্বাধীনতা এবং নাগরিকের মত প্রকাশের অধিকারের হুমকিস্বরূপ বলে মনে করছে মানবাধিকার সংগঠনগুলোর জোট হিউম্যান রাইটস ফোরাম বাংলাদেশ । আলোচনার মাধ্যমে এ আইনটির প্রয়োজনীয় সংশোধন আনার আহ্বান জানিয়ে ফোরাম চলমান মামলাগুলোর বিচার-প্রক্রিয়া স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ করারও দাবি জানিয়েছে। গতকাল রোববার ফোরামের এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিবৃতিতে সই করেন সংগঠনের আহ্বায়ক ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা সুলতানা কামাল। সংশোধিত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের বেশ কিছু ধারার অস্পষ্টতা নাগরিকদের বাক ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা লঙ্ঘনে অপব্যবহূত হতে পারে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়। এতে বলা হয়, ২০০৬ সালে প্রণীত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের বিধিমালায় ৫৭ ধারার অপব্যবহার হতে পারে বলে আগেই উদ্বেগ প্রকাশ করে

প্রিয় পাঠক ও লেখকদের জন্য সুখবর… সুখবর

ebdnews
বহুল প্রচারিত ও সমাদৃত আপনাদের প্রিয় অনলাইন পত্রিকা ইবিডিনিউজ ডটকমে যারা বিভিন্ন ধরনের লেখা লিখতে ইচ্ছুক তাদের জন্য একটা সুযোগের দ্বার খুলে দিল ইবিডিনিউজ ডটকম । আমরা বিভিন্ন ক্যাটাগরির পাঠকদের কথা বিবেচনা করে এবং তাদের লেখালেখির হাতেখড়িকে প্রতিষ্ঠিত তথা উজ্জিবিত করতে আমাদের ভিন্নধর্মী পদক্ষেপ ‘পাঠকলেখা’ ক্যাটাগরি অপেন করেছি । যার মাধ্যমে যেকোন পাঠক তাদের মতামত, ভালোলাগা, মন্দলাগা নানা বিষয়, অ্যাডভেঞ্চার, ছোটগল্প, কৌতুক সহ যেমন ইচ্ছা তেমন লিখে আমাদের নিকট পাঠিয়ে দিন । আপনার লেখা যদি মানসম্পন্ন হয় তবে আমরা তা অবশ্যই প্রকাশ করবো এবং আপনাদের ফেসবুক পেজে সেন্ড করবো । যার ফলে আপনারা লেখাটি আপনার বন্ধুবান্ধবসহ সকলের সাথে শেয়ার করতে পারবেন এবং নিজের কৃতিত্ব অন্যর সাথে ভাগাভাগি করতে পারবেন । প্রিয় পাঠক আর দেরি নয় দ্রুত আপনার লেখা পাঠিয়ে দিন আমাদের এই ইমেইল: info.ebdnews@gmail.com এ । প্রিয় পাঠ